USA

শান্তর ট্রাস্ট এক্যাউন্টে ৯৩০৯.৫৬ ডলার জমা দেয়ার প্রতিশ্রুতি


U

ইউএসএনিউজ অনলাইন.কম : বাংলাদেশ থেকে নিষ্ঠুর পরিণতির শিকার হয়ে দু’হাত হারানো রবিউল ইসলাম শান্ত এখন তার বায়োনিক হাত নিয়ে সাচ্ছন্দে দিন কাটাচেছ বলে জানিয়েছেন উদয়ন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা রেদোয়ান চৌধুরী। নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে ফুডকোর্ট পার্টি হলে গত ১ ফ্রেব্রুয়ারী বিকেলে আয়োজিত এক জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান। সংবাদ সম্মেলনে শান্ত কিভাবে আমেরিকায় আসলো, শান্ত‘র চিকিৎসা সেবায় উদয়নের ভ’মিকা, নিউইয়র্ক সিটি ইউনিভার্সিটির ছাত্র-ছাত্রীদের ফান্ড কালেকশনসহ সার্বিক বিষয়ে তুলে ধরা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে উদয়ন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা রেদোয়ান চৌধুরী জানান, উদয়ন প্রথম শান্ত’র সম্পর্কে অবগত হয় এনটিভি’র মাধ্যমে গত বছরের মার্চ মাসে। শান্তকে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য সহযোগিতার হাত বাড়ায় ২৫শে এপ্রিল। তিনি বলেন, রবিউল ইসলাম শান্ত নামটি দেখলেই মনের দৃশ্যপটে ভেসে ওঠে ৭ বছরের একটি ফুটফুটে শিশুর ছবি, যে সৎ বাবার নিষ্ঠুর নির্যাতনের শিকার হয়ে দুটি হাত হারায় গত বছরের ফ্রেব্রুয়ারী মাসে। ভিক্ষাবৃত্তি করানোর জন্য সৎ বাবা এবং তার নিজ মায়ের এই পৈষাচিক আচারন দাগ কাটে উদয়ন ফাউন্ডেশনের। মিডিয়ার কল্যাণে মার্চ মাসে শান্তর কথা শুনে এক মহুর্ত দেরী না করে উদয়ন ফাউন্ডেশন মাঠে নামে শান্তর জন্য কিছু একটা করার জন্য।
তিনি জানান, কিভাবে শান্তকে বিনা মূল্যে আমেরিকায় চিকিৎসা করানো যায় সে বিষয়ে তারাা বিভিন্ন হাসপাতালে যোগাযোগ করতে থাকেন। অব্যাহত চেষ্টার ফলে শ্রাইনারস হাসপাতাল ফিলাডেলফিয়া লিখিত ভাবে প্রতিশ্রুতি দেয় শান্তকে বিনামূল্যে দুটি প্রসটেক্টিক হাত ট্রান্সপেলেন্টেশন এর জন্য। শ্রাইনারস হাসপাতালের দেয়া প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী উদয়ন ফাউন্ডেশন স্পন্সারের সকল কাগজপত্র তৈরী করে ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব স্টেট এবং এউএস এম্বাসি ঢাকাতে পাঠায়। উদয়ন ফাইনাল রির্পোট জানায় ইউএস ডির্পাটমেন্ট অব স্টেট এবং এউএস এম্বাসি ঢাকায়।
সংবাদ সম্মেলনে রেদোয়ান চৌধুরী জানান, অনেক র্দুভোগ এর পর চিকিৎসার জন্য শান্ত এবং রোকসানা কামার উদয়নের স্পসরে গত ২০শে অক্টোবর আমেরিকার ভিসা পায় এবং ২৯ অক্টোবর ইউএস সময় মধ্য রাতে নিউ ইর্য়ক পৌছায় তার উন্নত চিকিৎসার জন্য। ৩০ শে অক্টোবর সকালে ফিলেডলফিয়ার শ্রাইর্নাস হাসপাতালে শান্তর প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে বিভিন্ন ধাপে তার চিকিৎসার কাজ সম্পন্ন হয়। গত ২৪শে জানুয়ারী শুক্রবার শান্তর চিকিৎসার কাজ সম্পন্ন হলে হাসপাতাল থেকে তাকে রিলিজ দেয়া হয়।
উদয়ন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা রেদোয়ান চৌধুরী জানান, চিকিৎসার সকল খরচ শ্রাইনারস হাসপাতাল বহন করে। শ্রাইনারস হাসপাতাল উদয়ন কে জানিয়েছে, শান্তর ভবিষৎ চিকিৎসাও শ্রারাইনারাস হাসপাতাল বিনামূল্যে করবে। শারিরিক কোন সমস্যা দেখা না দিলে শান্তর ভবিষৎ চিকিৎসার জন্য আগামী দু-এক বছর তাকে ইউএস এ আসতে হবেনা বলে হাসপাতাল কতৃপক্ষ জানিয়েছে।
শান্ত এবং রোকসানা কামারের থাকা খাওয়ার জন্য সিটি ইউনির্ভাসিটি নিউইর্য়ক এর ছাত্র-ছাত্রীসহ বিভিন্ন জন বিভিন্ন ভাবে সাহায্য করেছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। উদয়নের জানা মতে, এসব অর্থ স্ব-স্ব প্রতিষ্ঠানের অথবা ব্যক্তিগত একাউন্টে জমা আছে, যা পরবর্তিতে শান্তর ট্রাস্ট এক্যাউন্টে জমা দেয়া হবে।
তিনি জানান, শান্ত এখন তার বায়োনিক হাত নিয়ে সাচ্ছন্দে দিন কাটাচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে উদয়নের পক্ষ থেকে শারাইনারস হাসপাতাল এর সকল ডাক্তার এবং সহ-কর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানো হয়। বিনা মূল্যে শান্তর চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দেয়ার জন্য শারাইনারস হাসপাতাল এর ডন সেফার এর প্রতিও বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানানো হয়। এছাড়া শান্তর সকল সহযোগী, শুভাকাংক্ষী, সিটি ইউনির্ভাসিটি নিউইর্য়ক এর ছাত্র-ছাত্রী, মিডিয়াসহ সংশ্লিষ্ট সকল কে উদয়ন ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে সাদুবাদ জানানো হয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সকলকে পরিচয় করিয়ে দেন প্রবীণ সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহ। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এনওয়াই আইটির ছাত্র ফয়সাল নাহিয়ান, নিউইয়র্ক সিটি ইউনিভার্সিটির ছাত্র শেখ মিনহাজ হোসেন, ছাত্রী মিথিলা মিথুন চৌধুরী এবং সাইফ আজাদ। সংবাদ সম্মেলনে শান্তর চিকিৎসায় তাদের ভ’মিকার কথা তুলে ধরেন। এসময় ফয়সাল, মিনহাজ, মিথুন এবং সাইফ জানান, তারা শান্তর জন্য ১১৫৬০.৯৮ ডলার ডোনেশান কালেকশন করেন। শান্তর জন্য এপর্যন্ত তাদের ব্যয় হয ২২৫১.৪২ ডলার। একাউন্টে জমা রয়েছে ৯৩০৯.৫৬ ডলার। যা পরবর্তিতে শান্তর ট্রাস্ট এক্যাউন্টে জমা দেয়া হবে বলে তারা জানান।
উল্লেখ্য, সংবাদ সম্মেলনে শান্ত এবং রোকসানা কামার উপস্থিত ছিলেন না। সংবাদ সম্মেলনে উদয়ন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা রেদোয়ান চৌধুরী জানান, শান্ত হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় রোকসানা কামার শান্তকে নিয়ে ফিলাডেলফিয়া শ্রাইনারস হাসপাতাল নিয়ে যাওয়ায় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হতে পারেননি।