USA

নিউইয়র্ক বইমেলা ২২-২৪ জুন, শিশু-কিশোর মেলা ১৭ মার্চ : বইমেলায় প্রবর্তিত হচ্ছে ‘চিত্তরঞ্জন সাহা প্রকাশনা পুরস্কার’


ইউএসএনিউজঅনলাইন.কম : নিউইয়র্ক বইমেলার ২৭ বছর পূর্তি উৎসব আগামী ২২, ২৩ ও ২৪ জুন। শিশু কিশোর মেলা অনুষ্ঠিত হবে ১৭ মার্চ। এ উপলক্ষ্যে ব্যাপক অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে। বইমেলায় প্রবর্তিত হচ্ছে ‘চিত্তরঞ্জন সাহা প্রকাশনা পুরস্কার’।উৎসবকে সফল করার লক্ষ্যে গত ৭ জানুয়ারী দুপুর ২টায় নিউইয়র্কে জ্যাকসন হাইটেসের একটি রেঁস্তোরায় ২৭তম নিউইয়র্ক বইমেলা প্রস্তুতি কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। বইমেলার আহ্বায়ক ড. নূরন নবীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সভায় নিউইয়র্ক বইমেলায় আগত প্রকাশকদের মধ্য থেকে ‘প্রকাশনা পুরস্কার’ প্রদান, ফেসবুকে নিউইয়র্ক বইমেলার পেইজ তৈরী করা, সাহিত্যিক সমরেশ মজুমদার ও কবি আসাদ চৌধুরীকে বইমেলায় অতিথি হিসেবে যোগ দেয়ার আমন্ত্রণ জানানোসহ বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। আহ্বায়ক ড. নূরন নবী বইমেলার বিভিন্ন অগ্রগতির কথা সভায় তুলে ধরেন। বাংলাদেশে সফরকালীন বিভিন্ন লেখক-প্রকাশকের সঙ্গে তাঁর যোগাযোগ এবং নিউইয়র্ক বইমেলা নিয়ে নানাজনের আগ্রহের কথা তিনি সভায় উল্লেখ করেন। প্রাাবন্ধিক সাংবাদিক হাসান ফেরদৌস ফেসবুকে নিউইয়র্ক বইমেলার পেইজ তৈরী করা, ‘প্রকাশনা পুরস্কার’ প্রদানের নিয়ম-কানুন প্রণয়ন এবং বইমেলার বাজেট বিষয়ে তাঁর মতামত তুলে ধরেন। সাংবাদিক নিনি ওয়াহেদ তুলে ধরেন বইমেলার গৌরবময় বিষয়গুলোর সঙ্গে আরো নতুন নতুন ধারণার যুক্ততার প্রসঙ্গ। সভায় বাংলা একাডেমীর মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খানের পরামর্শ অনুযায়ী নিউইয়র্ক বইমেলায় ‘চিত্তরঞ্জন সাহা প্রকাশনা পুরস্কার’ প্রদান করার প্রস্তাবনা রাখেন বিশ্বজিত সাহা। নিউইয়র্ক বইমেলায় বাংলাদেশ থেকে যেসব প্রকাশনা সংস্থা নিউইয়র্ক বইমেলায় যোগ দেবে তাদের পাঠানো বইয়ের একটি তালিকা আমেরিকার পাঠকদের কাছে পৌঁছানোর বিষয়টিও তিনি কমিটির কাছে তুলে ধরেন। ফেসবুকে নিউইয়র্ক বইমেলার পেইজ সম্পাদনার দায়িত্ব প্রদান করা হয় আহমাদ মাযহার ও আদনান সৈয়দকে। উল্লেখ্য আগামী ২২, ২৩ ও ২৪ জুন নিউইয়র্ক বইমেলার ২৭ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে। আহ্বায়ক কমিটির ঐ সভায় আরো বক্তব্য রাখেন আহমাদ মাযহার, এবিএম সালেহ উদ্দীন, লুবনা কাইজার, ইশতিয়াক রূপু প্রমুখ।
সভায় শিশু-কিশোর মেলার সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে বক্তব্য রাখেন আহ্বায়ক সেমন্তী ওয়াহেদ। শিশু-কিশোরদের নিজেদের প্লাটফরম তৈরী করা ও নিজেদের প্রতি আস্থা অর্জনের উদ্দেশ্যে গত বছর থেকে মুক্তধারা ফাউন্ডেশন বইমেলা থেকে পৃথক করে শিশু-কিশোর মেলার আয়োজন শুরু করে। এর আগে ১৯৯২ সালে বইমেলা থেকেই শুরু হয় শিশু-কিশোরদের বাংলা লিখনসহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতা। এবছর এখানে বেড়ে ওঠা শিশু-কিশোররাই আয়োজন করছে এই মেলা। প্রতিযোগিতার বিষয় নির্বাচন, কমিটির সদস্য ঠিক করা, মহড়ার স্থান নির্বাচন, অনুষ্ঠান পরিকল্পনা ইত্যাদি সকল বিষয়ই সিদ্ধান্ত নিচ্ছে নতুন প্রজন্মের সদস্যদের নিয়ে গঠিত ২২ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি। শিশু কিশোর মেলা অনুষ্ঠিত হবে ১৭ মার্চ জ্যাকসন হাইটসের পিএস ৬৯ মিলনায়তনে।
সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন কমিটির সদস্য তমিজউদদীন লোদী, রানু ফেরদৌস, সাবিনা হাই উর্বী, নাসরিন চৌধুরী, ওবায়দুল্লা মামুন, শফি চৌধুরী হারুন, জেবু চৌধুরী, রওশন হাসান, মোশারফ হুসেইন, মাকুসদা আহমেদ, উইলী মুক্তি, পারভীন সুলতানা, রিমি রুম্মান, শুভ রায়, মিশুক সেলিম, ভায়লা সেলিনা, আলেয়া চৌধুরী প্রমুখ।


Leave a Comment